চৌগাছায় কথিত বন্দুকযুদ্ধে বিএনপি কর্মী হত্যা

 

শীর্ষনিউজ, যশোর: যশোরের চৌগাছায় কথিত বন্দুকযুদ্ধে রতন (২৭) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। তিনি উপজেলার দীঘলসিংগা গ্রামের আবু বাক্কারের ছেলে। রতন বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিল বলে তার প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন।

চৌগাছা থানার ওসি খোন্দকার শামিম উদ্দিনের দাবি, বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটার দিকে তারা সংবাদ পান- চৌগাছা যশোর সড়কের কয়ারপাড়া নামক স্থানে গুলাগুলি হচ্ছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এসময় সেখানে একজনের লাশ, একটি ওয়ান শুটারগান, এক রাউন্ড গুলি ও এক প্যাকেট ইয়াবা পড়ে থাকতে দেখা যায়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

কিন্তু নিহতের পিতা আবু বাক্কর ও মা ফরিদা বেগম জানান, তাদের ছেলে বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটার দিকে পাওনা টাকা আদায়ের জন্য মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। সন্ধ্যার সময়ও সে ফিরে না আসায় এবং তার মোবাইল ফোন রিসিভ না হওয়ায় আমরা চারিদিকে খুঁজতে থাকি, কিন্তু কোনও সন্ধান পাই না।

অবশেষে শুক্রবার ভোরবেলা আমাদের একজন পরিচিত লোক যশোর সদর হাসপাতাল থেকে ফোন করে জানায়, হাসপাতালে রতনের মতো দেখতে একজনের লাশ রয়েছে। সংবাদ পেয়ে সেখানে গিয়ে আমরা তার লাশ সনাক্ত করি।

রতনের প্রতিবেশীরা জানান, প্রতিবেশীদের বিপদে আপদে সে সবার আগে এগিয়ে যেত।

নাম প্রকাশ না করে অনেকে জানান, তারা বিএনপি ঘরানার লোক, সেকারণে এই অবস্থা।

Facebook Comments

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.