বৃটেনে অাইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটাতে নিজ দলীয় কর্মীদের উস্কে দেয়ায় শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হচ্ছে

ব্রিটেনে সন্ত্রাসবাদ উস্কে দেয়ার অভিযোগে ব্রিটেন সরকার এবং স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের কাছে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দায়ের করা হচ্ছে। নিজের দলীয় লোকজনকে আইন হাতে তুলে নিতে এবং সন্ত্রাসী কার্যক্রমে লিপ্ত হতে উস্কানি দিয়ে ব্রিটেনের প্রচলিত আইন ভঙ্গ করার অপরাধে এই অভিযোগ দায়ের করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ-বাংলাদেশী কয়েকজন আইনজীবী।

শনিবার (২১ এপ্রিল) ওয়েস্ট লন্ডনে ইউকে আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনাকে দেয়া দলীয় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা তার দলের নেতাকর্মীদের আইন হাতে তুলে নিতে উস্কানিমূলক বক্তব্য দেন। তার এই উস্কানিমূলক বক্তব্য দেশে বিদেশে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। ব্যাংক ডাকাত সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরসঙ্গী ছিলেন বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোর ডট কম এর সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট মহিউদ্দিন মাহমুদ। শেখ হাসিনার বক্তব্য নিয়ে লন্ডন থেকে তাঁর পাঠানো রিপোর্টটি প্রকাশিত হয়েছে আওয়ামী ঘরানার অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলানিউজ২৪ এ। প্রকাশিত সংবাদে দেখা যায় শেখ হাসিনা প্রতিপক্ষের উপর দলীয় নেতাকর্মীদের হামলার উস্কানি দিচ্ছেন।

……দূতাবাসে হামলা বিষয়ে প্রবাসী বাঙালিদের উদ্দেশ্য করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এই ঘটনাগুলো যারা ঘটিয়েছে, তারা কোথাও চলাফেরা করে না? তাদের দেখেন না? যে হাত দিয়ে জাতির পিতার ছবি ভেঙেছে, তাদের যা করার তা করতে হবে। তাদের চেহারা চেনেন না?’…..

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘন, গুম খুন অপহরণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে স্মারকলিপি দিতে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী ইউকে বিএনপি এবং একদল প্রবাসী বাংলাদেশী লন্ডনে বাংলাদেশ হাই-কমিশনে যায়। কিন্তু সেখানে হাই-কমিশনের কতিপয় কর্মকর্তা কর্মচারী প্রবাসী বাংলাদেশীদের সঙ্গে উস্কানিমূলক আচরণ করে। এ সময় কয়েকজন বিক্ষুব্ধ প্রবাসী বাংলাদেশী হাই কমিশনের দেয়ালে টাঙানো শেখ হাসিনার পিতা শেখ মুজিবের ছবি ভাংচুর করে। পরে এ বিষয়ে হাই-কমিশন একটি মামলা দায়ের করে। মামলাটি ব্রিটিশ আইনে যথানিয়মে তদন্ত করছে বৃটেনের পুলিশ। কিন্ত শেখ হাসিনা ব্রিটিশ পুলিশের তদন্ত রিপোর্টের অপেক্ষা না করেই হাই-কমিশনে ঘটে যাওয়া অপ্রীতিকর ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের উপর যেখানে পাওয়া যায় সেখানেই হামলার নির্দেশ দেন।

এদিকে শেখ হাসিনার এই সন্ত্রাসী তৎপরতা নিয়ে যারা ব্রিটেন সরকার এবং স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের কাছে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তাদের মধ্যে একজন ব্রিটিশ-বাংলাদেশী আইনজীবী বলেন, শেখ হাসিনার বক্তব্য সুস্পষ্টভাবে তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের ওপর হামলার নির্দেশ। তিনি স্পষ্টত:ই যুক্তরাজ্যে সন্ত্রাসী কার্যক্রমে লিপ্ত হতে এবং আইন নিজের হাতে তুলে নিতে ব্রিটেনে তার দলের নেতাকর্মীদের উস্কানি দিয়েছেন। এটি ব্রিটেনের আইনের সরাসরি লঙ্ঘন। এই অভিযোগেই শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। একইসঙ্গে বাংলাদেশেও শেখ হাসিনা কিভাবে আইনের শাসনের পরিবর্তে নিজের দলীয় নেতাকর্মীদের দ্বারা সন্ত্রাসের রাজত্ব প্রতিষ্ঠা করছেন সেই সব তথ্যও ব্রিটেন সরকার এবং স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের কাছে দেয়া হবে বলেও ওই আইনজীবী জানান। ওই আইনজীবী মন্তব্য করে বলেন, বিভিন্ন সময়ে দেশে বিদেশে দলীয় নেতাকর্মীদের আইন নিজের হাতে তুলে নিতে উস্কানি দিয়ে শেখ হাসিনা প্রমান করেছেন তিনি একজন স্বভাবজাত সন্ত্রাসী। তিনি আরো জানান, তারা এরইমধ্যে শেখ হাসিনার বক্তব্যের কপি সংগ্রহ করেছেন। আপাততঃ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই আইনজীবী জানান, শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযোগ দায়েরের আগে ব্রিটেনের আইনজীবীদের সঙ্গেও তারা আলোচনা করছেন।

Facebook Comments