বিরিয়ানি প্যাকেট, নগদ টাকায় লোক আনতে পারেনি। ভুয়া উন্নয়নের দাবীর র‌্যালি ফ্লপ!

গতকাল সপ্তাহের শেষ দিনে রাজধানী জুড়ে সরকারের হৈ চৈ গেলো। “উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা” লাভ করায় সরকারী কর্মচারীদেরকে রাস্তায় নামিয়ে উল্লাস উৎসব করার হুকুম দেয়া হয়। লোক সংখ্যা বেশি দেখাতে বিরিয়ানির প্যাকেট এবং কড়কড়ে হাজার টাকার নোট ছেড়েও খুব বেশি মানষি ভেড়ানো যায়নি। সরকারী কর্মকর্তাদের মতে পুরোই ফ্লপ!

কারন এর আগেই জানাজানি  হয়েছে, জাতিসংঘের  নামে চালিয়ে দেওয়া এই স্বীকৃতি পেতে আরও ৬ বছর কাজ করতে হবে। যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তবেই তকমা। দেশের জনগন ৬ বছর আগেই এটা সেলিব্রেট করতে প্রস্তুত নয়!

লোকজন বলাবলি করছে–শুনলাম, মাথাপিছু বিরিয়ানী, টি-শার্ট, ক‍্যাপ দিয়ে বিশ্বের দুই নম্বর প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ণ-উৎসবে জনসমাগম বাড়ানো যাচ্ছে না! টাকা দেওয়ার খবরও শোনা যাচ্ছে। তবে, অন‍্যগুলোর মতো দৃশ্যমান না।

কিন্তু, আমার প্রশ্ন হল: এই বিরিয়ানী, টি-শার্ট, ক‍্যাপ কার বাপের টাকায় কেনা হয়েছে? যদি শেখ হাসিনার পৈতৃক অর্থে বা সজীব ওয়াজেদের বাপের টাকায় কেনা হয়, তাহলে কোনো কথা নেই। আর যদি আমার ট‍্যাক্সের টাকায় কেনা হয়ে থাকে, তাহলে হাশরের ময়দানে হাসিনার কাছ থেকে সব টাকা আদায় করা হবে!

Facebook Comments

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.