১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে খুলনায় বিএনপির জনসভা

ষড়যন্ত্র এবং ভয়কে জয় করার নাম রাজনীতি। সাহস করে এগিয়ে গেলে কোনো বাধাই বাধা নয়। ১৪৪ ধারা ভেঙ্গে আজ খুলনা বিএনপির বিশাল জনসভা করে দেখিয়ে দিলো নেতৃত্ব কাহাকে বলে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে খুলনায় সরকারি বাধা উপেক্ষা করে দলটির পূর্বঘোষিত জনসভায় হাজার হাজার নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষের ঢল নামে। শনিবার বিকেল ৩টায় খুলনা নগরীর কেডি ঘোষ রোডে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এই জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। দলীয় চেয়ারপারসনের মুক্তি আন্দোলনে কেন্দ্র ঘোষিত তৃতীয় পর্যায়ের কর্মসূচিতে খুলনায় আজ এই জনসভায় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামসহ শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা এই সমাবেশে উপস্থিত হন।

২ সপ্তাহ আগে ঘোষিত খুলনায় এই জনসভা বানচাল করতে সরকারী দল এবং পুলিশ মরিয়া হয়ে ওঠে। হাদিস পার্কে সমাবেশ করার জন্য ১১দিন আগে কেসিসি থেকে অনুমতি নেয় মহানগর বিএনপি। খুলনা পুলিশকে চিঠিও দেয়। হঠাৎ দুইদিন আগে মহিলা আওয়ামীলীগ সেখানে মিটিং করতে চায় এমন কথা বলে নোংরা খেলায় মেতে ওঠেন খুলনা মহানগর পুলিশের কমিশনার হুমায়ুন কবির। দু’টি বিবদমান দলের সভার অজুহাতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার কথা বলে নগরীর শহীদ হাদিস পার্কসহ পার্শ্ববর্তী এলাকায় সকল ধরনের সভা-সমাবেশ ও মিছিলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে পুলিশ। সারা শহরে মাইকিং করে। পুলিশ ১৪৪ ধারা জারি করে, পুলিশের মাইক লাগাতে মঞ্চ তৈরি করতে বাঁধা দেয়া, ২৫ নেতা কর্মীকে আটক, জল কামানের গাড়ী রেডি, হাজার হাজার পুলিশ দিয়ে যুদ্ধংদেহী অবস্থানে দেখা যায়।

পুলিশের এই ন্যাক্কারজনক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠে বিএনপি। সাংবাদিক সম্মেলন করে তারা ঘোষণা দেয়- সমাবেশ হবে। মহানগর বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম মঞ্জুর আহবান ছিল- “বাংলার নেত্রী, বাংলার মা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আজ ১০ই মার্চ, শনিবার বিকাল ৩টায়, নগরীর কেডি ঘোষ রোডস্থ এলাকায় খুলনা বিভাগীয় জনসভায় দলে দলে যোগ দিন। ভয়কে জয় করে আসুন মুক্তির মিছিলে।” সকাল থেকেই হাজার হাজার মানুষ নেমে পড়ে রাস্তায়। উড়ে যায় ১৪৪ ধারা। অবস্থা বেগতিক দেখে পুলিশ সরে যায়। সফল হয় বিএনপির মহাসমাবেশ। বিজয় হয় জনতার।

খুলনার এ জনসভায় বিএনএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে “মাদার অব ডেমোক্রেসি” খেতাবে ভুষিত করা হয়।

/ফেসবুক

Facebook Comments
Content Protection by DMCA.com

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.