খালেদা জিয়া ‘মাদার অব ডেমোক্রেসি’

খুলনার মহা সমাবেশ থেকে বেগম খালেদা জিয়াকে ‘মাদার অব ডেমোক্রেসি’ হিসেবে উপাধি ঘোষনা করা হয়েছে। গণতন্ত্রের জন্য বিরামহীন সংগ্রামের স্বীকৃতি হিসাবে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী কারাবন্দী বেগম খালেদা জিয়াকে এ উপাধি দেয়া হয়।

শনিবার বিকেলে খুলনায় বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে হাজার হাজার জনতারিউপস্থিতিতে এ ঘোষণা দেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ সময় উপস্থিত বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী স্লোগান দিয়ে তার এ উপাধিতে সমর্থন জানান।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের জন্য অনেক সংগ্রাম করেছেন, অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন। এ জন্য তাকে আজ ‘মাদার অব ডেমোক্রেসি’ (গণতন্ত্রের জননী) উপাধি দেয়া হলো।’

১৪৪ ধারা জারী করে নিষেধাজ্ঞা ও নানা বাধা উপেক্ষা করে শনিবার বেলা ৩টা থেকে নগরীর কেডি ঘোষ রোডে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এই জনসভা শুরু হয়।

এর আগে দুপুর ১টা থেকেই নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে আসতে থাকেন। সমাবেশ শুরু পরপরই সমাবেশস্থল কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাধারণ মানুষের ঢল নামে বিএনপির এই সমাবেশে।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, আব্দুল মঈন খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার জনগণকে ভয় পায়। এ জন্যই পুলিশ দিয়ে বিএনপির সমাবেশে বাধা দেয়া হচ্ছে, ১৪৪ ধারা জারি করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, কেন্দ্র ঘোষিত এই সমাবেশ খুলনা হাদিস পার্কে আয়োজনের কথা ছিল। পরে সেখানে আওয়ামী মহিলা লীগ পাল্টা সমাবেশের ডাক দিলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সেখানে ১৪৪ জারি করা হয়।

পরে বিএনপি সার্কিট হাউজে করতে চাইলেও অনুমতি মেলেনি। সর্বশেষ দলীয় কার্যালয়ের সামনে করতে চাইলে সেখানেও বাধা দেয়া হয়। তবে সেই বাধা উপেক্ষা করেই বিএনপি সমাবেশ সফল করে।

Facebook Comments