জাবেদ পাটোয়ারীকে আইজি করায় পুলিশ বাহিনীতে বিদ্রোহের আশংকা

দীর্ঘদিন পরে পুলিশ বাহিনীতে গোপালীদের আধিপত্য খর্ব হতে যাচ্ছে। তিন দিন আগে জাবেদ পাটোয়োরীকে পরবর্তী পুলিশ মহাপরিদর্শক নিয়োগ করা হয়। তাঁবর বাড়ি চাঁদপুরে। তবে জাবেদকে আইজিপি করা নিয়ে আওয়ামী ঘরানার বিশেষ করে গোপালী পুলিশ কর্তারা দারুণ বিক্ষুব্ধ। বেনজির মনিরের মত সিনিয়র অফিসাররা উচ্চ বাচ্য করছে। গ্রুপে গ্রুপে মিটিং করছেন তারা। পুলিশ বাহিনীতে বিদ্রোহের আশংকা দেখা দিয়েছে।

বিসিএস ৮৪ ব্যাচের প্রথম কর্মকর্তা জাবেদ পাটোয়োরী এতকাল বিএনপি ঘরানার কর্মকর্তা হিসাবে পরিচিত ছিল। কিন্তু হঠাৎ এই কর্মকর্তাকে আইজিপি করায় এতকাল ধরে আওয়ামী লীগকে সার্ভিস দেয়া দলবাজ কর্মকর্তারা ক্ষোভে আতঙ্কে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। তারা মনে করছেন, আগের আইজির মত জাভেদ পাটোয়ারীর কাছ থেকে সুবিধা পাওয়া যাবে না। অনেকেই পদ হারানো এবং শৃঙ্খলা মামলায় পড়ার আশঙ্কা করছেন। বেনজির, মনিরুল, হারুনরা প্রকাশ্যেই হুমকি দিচ্ছেন বিদ্রোহের।

আইজিপি পদের জন্য দীর্ঘদিন ধরে আলোচনায় ছিলেন ৮৪ ব্যাচের মোখলেসুর রহমান, ৮৫ ব্যাচের বেনজির আহমেদ ও আসাদুজ্জামান। এর আগে শহীদুল হককে আইজিপি করার সময়ও নির্ভরযোগ্য মনে না করায় জাবেদ পাটোয়োরীকে সুপারসিড করা হয়। এবারে এমন কি কান্ড হলো যে জাবেদকে আইজিপি করতে হবে? অনেকেই মনে করছেন বাইরের কোনো শক্তি এই নিয়োগ দিয়েছে।

ডঃ জাবেদ পাটোয়োরী কখনই আওয়ামী ঘরানার কর্মকর্তা হিসাবে পরিচিত ছিল না। তবে আওয়ামী ঘরানার কর্মকর্তাদের বাড়াবাড়ি দেখে জাবেদ কৌশলে আগাতে থাকেন। এসবির দায়িত্বে থাকার সময় তিনি মহাফেজখানায় খুঁজে পান পাকিস্তান আমলে জেলখানায় শেখ মুজিবের বিভিন্ন দলিল ও চিঠিপত্র। ক্লাসিফাইড এসব ডকুমেন্টকে বাইরে নিয়ে আসেন জাবেদ। সেগুলো কপি করে পুস্তক আকারে শেখ হাসিনার কাছে হাজির করেন। সেখান থেকে পত্রপত্রিকায় প্রকাশ করা হয়। এ কীর্তির ফলে শেখ হাসিনার কাছে পয়েন্ট বেড়ে যায় জাবেদের। অফিসিয়াল সিক্রেসি আইন ভেঙে জাবেদের এই তেলবাজির কথা পুলিশ বিভাগের উর্ধতন কর্মকর্তা জানা ছিল্ কিন্তু জাবেদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন না করে তার ভাগ্যে আইজিপির শিকা ছিড়ে!

Facebook Comments

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.